তারেকের ধমক, ‘আপনাদের নূন্যতম…

750

বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে তাঁর আইনজীবীরা সিরিয়াস নন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক
জিয়া। তারেক জিয়া বেগম জিয়ার জন্য নিযুক্ত ব্রিটিশ আইনজীবীর সঙ্গে দীর্ঘ পরামর্শের পর এই অভিযোগ করেছেন।

দুমাস আগে তারেক জিয়া ব্রিটিশ আইনজীবী লর্ড কারলাইলকে বেগম জিয়ার সব মামলার আইনী পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ দেন। ঢাকায় আইনজীবীদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যে, সব মামলার কাগজপত্র লন্ডনে পাঠাতে হবে। সেখানে লর্ড কারলাইন কাগজপত্র নিরীক্ষা করে বলেছেন, বিএনপির আইনজীবীরা ভুল পথে এগুচ্ছে। মামলাগুলো জামিনের আবেদনের বদলে সবগুলো মামলার কোয়াশমেন্ট (বাতিল) পিটিশন করা উচিৎ ছিলো।

ব্রিটিশ আইনজীবী মনে করেন, মামলাগুলো বাতিলের আবেদন করে জামিন চাইলেই কেবল উচ্চ আদালত জামিন বিবেচনা করত। এখন উচ্চতর আদালতে যেভাবে জামিন চাওয়া হয়েছে, তাতে হাইকোর্ট সরাসরি এটি নিম্ন আদালতে শুনানির নির্দেশ দেবে বলেই ব্রিটিশ আইনজীবী মনে করেন।

তিনি জানিয়েছেন, এতে কালক্ষেপণ হবে। বেগম জিয়ার মুক্তি বিলম্বিত হবে। গতরাতে তারেক এইসব বিষয় নিয়ে তার দলের আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলেন এবং তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এক পর্যায়ে তারেক জিয়া তাঁদের আইনি জ্ঞান নিয়েও সন্দেহ করেন বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, ৯ মে বেগম জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলায় আপিল বিভাগ থেকে জামিন পান। কিন্তু আরো ৭টি মামলায় গ্রেপ্তারী পরোয়ানা থাকায় বেগম জিয়া এখন জেলে। লন্ডন থেকে লর্ড কারলাইল সবগুলো মামলা একসঙ্গে হাইকোর্টে নিষ্পত্তির পরামর্শ দিলে, ২১ মে হাইকোর্টে ৪ মামলার জামিনের আবেদন করা হয়। বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান এবং বিচারপতি জে বি এম হাসানের ডিভিশন বেঞ্চে ইতিমধ্যে দু’টি মামলার (কুমিল্লার হত্যা ও নাশকতার মামলা) শুনানি হয়েছে। কিন্তু শুধু জামিনের আবেদন করার প্রেক্ষিতে বেগম জিয়ার ব্রিটিশ পরামর্শক আইনজীবি অবাক হয়েছেন।

তিনি বলেছেন, নিম্ন আদালতে শুনানী ছাড়া উচ্চ আদালত জামিন দেয় এখনই যখন মামলাটি সরাসরি বাতিলের আবেদন করা হয়। কিন্তু আইনজীবীরা তা করেননি। বেগম জিয়ার ব্রিটিশ পরামর্শক মনে করছেন, এটাও একটা ভুল কৌশল।

পরে তারেক তার দলের আইনজীবীদের জিজ্ঞেস করলেন, ‘আপনাদের কি আইনের নূন্যতম জ্ঞান নেই? এভাবে কি আম্মা মুক্তি পাবে? অবশ্য বেগম জিয়ার আইনজীবীরা বলেছেন, এরকম জামিন দেয়ার এখতিয়ার হাইকোর্টের আছে। এর আগে নুরুল ইসলাম বাবুলের মামলায় হাইকোর্ট এভাবে জামিন দিয়েছিল।

আগামী রোববার এ ব্যাপারে হাইকোর্ট আদেশ দিতে পারে। সূত্রঃ সম্পাদক.কম