সাগরের নীল জলে অপূর্ব সুন্দরী মৎস্যকন্যা! ছবিতে দেখুন

296

আজ আপনাদের বাস্তব জীবনের এক মৎস্যকন্যার গল্প শোনাবো। যে নিজের স্বপ্নকে খুঁজে পেয়েছে সাগরের নীল জলে। চলুন শুনে আসি এই অপূর্ব সুন্দরী মৎস্যকন্যার বিচিত্র গল্প।

আমরা ছোটবেলায় প্রত্যেকে কিছুনা কিছু হতে চেয়েছি। কেউ ডাক্তার, কেউ ইঞ্জিনিয়ার, কেউ পাইলট। কিন্তু আমাদের সেই চাওয়া কি পূরণ হয়েছে, আজ এই বর্তমানে? চাওয়া ও পাওয়ার মধ্যের দীর্ঘ পথটা হয়ত আমরা অনেকেই পাড়ি দিতে পারিনি। কিন্তু এই মৎস্যকন্যা পেরেছেন।

এই মৎস্যকন্যার নাম ‘মৎস্যকন্যা গাঢ়নীল’। হ্যাঁ, তিনি এই নামেই নিজের পরিচয় দেন। এই মৎস্যকন্যা আপনার আমার মত সাধারন কিছু স্বপ্ন দেখেননি। তিনি ছোটবেলা থেকেই মৎস্যকন্যা হতে চাইতেন। স্বপ্ন দেখতেন সাগরের অতল নীল জলে সাঁতার কেটে বেড়ানোর। এবং এখন তিনি তাই করেন। তার কাজ সাগরের নীল জলে মৎস্যকন্যা হয়ে সাঁতার কেটে বেড়ানো।

বড় হওয়ার সাথে সাথে নীলের মৎস্যকন্যা হওয়ার স্বপ্নটা ফিকে হয়ে আসছিল। কিন্তু তিনি সবার মত দমে যাননি এবং গভীর মমতায় বুকে পুষে রাখেন তার ছোট্টবেলার স্বপ্নটি। একদিন তিনি পানির নিচে হাঙর মাছের সাথে ডাইভ দেন এবং এই মাছ নিয়ে তার মনে কৌতূহল জাগে।

সাথে সাথে বুকের কোণে লালিত স্বপ্ন পূরণের সম্ভাবনাও দেখতে পান।

মৎস্যকন্যা হতে চাইলেও নীলের পানির প্রতি ভীতি ছিল। তাই গত ১০ বছরে তিনি একবারও সাঁতার কাটেননি। কিন্তু কঠোর পরিশ্রম ও অনুশীলন দ্বারা দ্রুত তিনি সাঁতারে পারদর্শী হয়ে উঠেন। এবং মৎস্যকন্যা সেজে সাগরের নীল জলে ভালো মত সাঁতার কাটা রপ্ত করেন।

এরপর তিনি জলের নিচে ছবির মডেল হওয়ার জন্য ফটোগ্রাফার পিয়া ভেনেগাসের প্রস্তাবটি পান। নীল সাচ্ছন্দে রাজী হয়ে যান এই প্রস্তাবে। রূপবতী মৎস্যকন্যা সেজে চোখ ধাঁধিয়ে দেন সবার। স্বপ্ন পূরণ হয়ে গেলেও তিনি থেমে যাননি।

তিনি তার এই কাজ হাঙর মাছের রক্ষার জন্য প্রচারণা হিসেবে ব্যবহার করা শুরু করেন।

প্রতি বছর প্রায় ১০ কোটি হাঙর মাছ নানা কারণে হত্যা করা হয়। তিনি তার পানির নিচে তোলা এসব ছবি হাঙর মাছদের বাঁচাতে প্রচারণায় কাজে লাগান। এসব ছবি তুলতে তাকে অনেক কষ্ট করতে হয়। পানির নিচে দম বন্ধ করে ছবির জন্য পোজ দেওয়া সহজ নয়। তবুও তিনি হাঙ্গরদের বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গভীর জলে ছবি তুলে যাচ্ছেন। সাথে সাথে তার অতল জলে নিজের স্বপ্ন জগতে বাস করার সাধটাও মিটিয়ে নিচ্ছেন।

নিচে তার আরো কিছু ছবি দেওয়া হল।

হাঙরদের সাথে গভীর জলে মৎস্যকন্যা।

অতল জলে ভাস্কর্যের সাথে তোলা একটি ছবি।

এই মৎস্যকন্যার ফেইসবুক আইডি ‘মারমেইড ডীপব্লু’। তার ছবি ও ভিডিও পেতে ইন্সট্রাগ্রামেও তাকে একই নামে খুঁজে পাবেন।

আজকের আয়োজন কেমন লাগলো জানাতে ভুলবেন না। পোস্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন।