সপ্তাহে মাত্র ১ বার ব্যবহার করেই যৌবন ধরে রাখতে পারবেন আজীবনঃপুরুষ নারী উভয়ের জন্যই এই নিউজ টি ।

179

মূলত যৌন আচরণের যে দিকটি পুরুষের জন্য অত্যন্ত স্পর্শকাতর তা হলো পুরুষাঙ্গ বা লিঙ্গের উত্থানে ব্যর্থতা। এটিকে আমরা অনেক সময় ইরেকটাইল ডিসফাংশন বলে থাকি। অবশ্য মেডিকেল টার্ম হিসেবে একে ইম্পোটেন্স বা পুরুষত্বহীনতাও বলা হয়ে থাকে।

একজন পুরুষ যখন যৌন সঙ্গম বা যৌনমিলনের জন্য মনোশারীরিকভাবে প্রস্ততি লাভ করে তখন যদি তার লিঙ্গ বা পুরুষাঙ্গ সঙ্গমের জন্য উপযুক্তভাবে উত্থিন না হয় তবে তা তার জন্য অত্যন্ত বেদনাদায়ক। সন্তোষজনকভাবে সেক্স করার জন্য ইরেকশন বা লিঙ্গের পর্যাপ্ত উত্থান একটি বাধ্যতামূলক আচরণ।

এর ফলশ্রুতিতে পুরুষের যৌন আগ্রহ বা যৌন ইচ্ছার যেমন ঘাটতি দেখা যায় তেমনি চরমপুলক অনুভূতি লাভও তার ভাগ্যে জোটে না। যে পুরুষ এর ভুক্তভোগী তিনিই কেবল জানেন এর কেমন মর্মপীড়া। অথচ মেডিকেল স্বাস্থ্য বিজ্ঞানে পুরুষত্বহীনতার অনেক আধুনিক কার্যকারী চিকিৎসা রয়েছে।

এখানে উল্লেখ্য যে,ইরেকটাইল ডিসফাংশন বা লিঙ্গ উত্থানজনিত নানা সমস্যা যে কোনো বয়সের পুরুষের ক্ষেত্রেই হতে পারে। হঠাৎ করে দুই একবার লিঙ্গ উত্থিন না হওয়া কোনো বড় সমস্যা নয় এটি আপনাআপনি দূর হয়ে যায়।অনেকের মনে এ প্রশ্ন আছে যে,পুরুষ লিঙ্গ কি ছোট হয়ে যেতে পারে কোনো কারণে?

এর উত্তর দিতে গে বলতে হয়.. সাধারণত হয় না। তবে টাইট কাপড়, খুব ঠাণ্ডা, মানসিক বিষণ্নতায় এবং দীর্ঘ দিন হস্তমৈথুন করলে লিঙ্গের টিস্যুগলো ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে লিঙ্গের সভাবাবিক আকার নষ্ট হতে পারে। এরকম হওয়াকেই লিঙ্গ ছোট হয়ে যাওয়া বলে অভিহিত করা হয়্।

বাজে খাদ্যাভ্যাস, ধূমপান, অ্যালকোহল, অনিয়ন্ত্রিত জীবন, ব্যায়ামে অনীহা প্রভৃতি কারণে দিন দিন অনুর্বরতা বাড়ছে। এক্ষেত্রে বিশেষ সহায়ক মসলা রসুন।

কেননা সুস্থ বীর্য তৈরিতে রসুনের জুড়ি মেলা ভার। যৌন অক্ষমতার ক্ষেত্রে রসুন খুব ভালো ফল দিয়ে থাকে৷ রসুন কে ‘গরীবের পেনিসিলিন’ বলা হয়৷ কারণ এটি অ্যান্টিসেপ্টিক এবং immune booster হিসাবে কাজ করে আর এটি অতিঅ সহজলভ্য সব্জী যা আমারা প্রায় প্রতিনিয়ত খাদ্য হিসাবে গ্রহন করে থকি৷

আপনার যৌন ইচ্ছা ফিরে আনার ক্ষেত্রে এর ব্যবহার খুবই কার্যকরী৷ কোন রোগের কারণে বা দুর্ঘটনায় আপনার যৌন ইচ্ছা কমে গেলে এটি আপনাকে তা পুনরায় ফিরে পেতে সাহায্য করে৷

এছাড়া যদি কোন ব্যক্তির যৌন ইচ্ছা খুব বেশী হয় বা তা মাত্রাতিরিক্ত হয় যার অত্যধিক প্রয়োগ তার নার্ভাস সিস্টেমের ক্ষতি করতে পারে এমন ক্ষেত্রে ও রসুন খুব ই কার্যকরী৷

সেবন বিধি প্রতিদিন নিয়ম করে কয়েক কোষ কাঁচা রসুন খেলে শরীরের যৌবন দীর্ঘ স্থায়ি হয় । যারা পড়ন্ত যৌবনে চলে গিয়েছেন, তারা প্রতিদিন দু’কোয়া রসুন খাঁটি গাওয়া ঘি-এ ভেজে মাখন মাখিয়ে খেতে পারেন।

তবে খাওয়ার শেষে একটু গরম পানি বা দুধ খাওয়া উচিত। এতে ভালো ফল পাবেন। যৌবন রক্ষার জন্য রসুন অন্যভাবেও খাওয়া যায়। কাঁচা আমলকির রস ২ বা ১ চামচ নিয়ে তার সঙ্গে এক বা দুই কোয়া রসুন বাটা খাওয়া যায়।

হার্ট ভালো রাখতে এটা করুন, সেটা করুন, কী খাবেন, কী খাবেন না, এক গাদা উপদেশ রোজই শুনছেন। রেড মিট বাদ দেওয়া, সকালে ৪০ মিনিট হাঁটা, সিগারেট ছেড়ে দেওয়া সবই চেষ্টা করে দেখেছেন। দু’দিন মেনেই আবার যেই কে সেই। তবে জানেন কি হার্ট ভাল রাখতে সেক্সের দারুণ রয়েছে? আমরেকান জার্নাল অফ কার্ডিওলজিতে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী সপ্তাহে দু’বার সেক্স হার্ট ভালো রাখে।ঠিক কীভাবে হার্ট ভালো রাখে সেক্স-

১। উচ্চরক্তচাপ ও হাইপারটেনশন হার্টের অসুখে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ায়। অর্গাজমের সময় অক্সিটোসিন হরমোনের ক্ষরণ হয়। এই হরমোন রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে।২। স্ট্রেস হার্টের অসুখের ঝুঁকি বাড়ায়। সেক্স শারীরিক উত্তেজনা বাড়িয়ে খুশির অনুভূতি আনে। ফলে স্ট্রেস কমে।৩। বেশি ওজনও হার্টের অসুখের কারণ হতে পারে। সেক্স ভাল এক্সারসাইজ। নিয়মিত সেক্স ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। – সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

বিয়ের পরে প্রথমবার সহবাসের আগে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি…

জীবনে প্রথমবার মিলিত হচ্ছেন আপনার সবথেকে প্রিয় মানুষটির সঙ্গে। একটু নার্ভাস, একটু এক্সাইটেড… কিন্তু নার্ভাস নেস কিংবা এক্সাইটেড হওয়ার মধ্যে মিলিত হওয়ার আগে অবশ্যই আপনার এবং আপনার প্রিয় মানুষটি প্রতি খেয়াল রাখুন। উত্তেজনার মুহূর্তে এমন কিছু করে ফেলবেন না, যাতে সারা জীবন সেই ভুল আপনাকে বয়ে চলতে হয়। সুতরাং সতর্ক থাকুন… আর তার মধ্যে থেকে আপনার প্রিয় মানুষটিকে ভালবাসুন। তাতে আপনিও থাকবেন সুস্থ… আর দেখবেন সবটাই সুন্দর ভালো হয়ে গিয়েছে-

১। মিলিত হওয়ার আগে অবশ্যই নিজের এবং আপনার প্রিয়জনের সুরক্ষার কথা মাথায় রাখুন। প্রথম মিলনের সময়ে অবশ্যই কন্ডোম ব্যবহার করবেন। সুরক্ষার ক্ষেত্রে যতই পিল খান, কন্ডোমের কোনও বিকল্প নেই।

২। প্রথম মিলনেই বিপুল সুখের প্রত্যাশা না করাই ভাল। দুজনের বোঝাপড়ার উপরে অনেক কিছু নির্ভর করে। সুতরাং, প্রথম রাতেই যদি চরম সুখ না পান, তাহলে হতাশ হবেন না। দেখবেন ধীরে ধীরে সমস্ত কিছু সয়ে গিয়েছে।

৩। মিলনের সময়ে নিজেকে যতটা সম্ভব রিল্যাক্সড রাখুন। উত্তেজিত হবেন ঠিকই, কিন্তু সেই উত্তেজনা যেন অসুস্থ করে না ফেলে।

৪। ফোরপ্লের গুরুত্ব ভুলে যাবেন না। সরাসরি মিলনে প্রবেশ না করে আগে চুম্বন, স্পর্শ ইত্যাদির মাধ্যমে নিজের ও সঙ্গীর শরীরকে মিলনের উপযোগী করে তুলুন। এতে মিলনের আনন্দ বৃদ্ধি পায়।

৫। পেনিট্রেট করার বিষয়টিকে মসৃণ করে তোলবার জন্য প্রয়োজনমতো ল্যুব্রিকেন্ট ব্যবহার করুন। পেনিট্রেশনের ব্যথা কমলে, মিলনের আনন্দও বৃদ্ধি পাবে।

৬। কোন বিষয়টি ভাল লাগছে, কোনটি ভাল লাগছে না, তা সঙ্গীকে জানান। পারস্পরিক বোঝাপড়া এতে বাড়বে।

৭। মিলনে চরম আনন্দ অধরা থাকলে তা-ও জানান সঙ্গীকে । চরম আনন্দ না পেয়েও যদি তা পাওয়ার ভান করেন, তাহলে সম্পর্কেরই ক্ষতি হবে।

৮। প্রথম মিলনে দ্রুত বীর্যপাত অত্যন্ত স্বাভাবিক ঘটনা। উত্তেজনার কারণে এটা ঘটতেই পারে। এর জন্য হীনমন্যতায় ভুগবেন না।